লকেটের সঙ্গে বৈঠকের পরই দলত্যাগ কেন জয় প্রকাশের? প্রশ্ন কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের

0

Last Updated on March 9, 2022 11:03 PM by Khabar365Din

৩৬৫দিন। প্রথমে লকেটের গোপন বৈঠক । তার ২৪ ঘন্টার মধ্যেই জয়প্রকাশ মজুমদারের (Jayprakash Majumdar) দল বদল। গোটা বিষয়টিকে একেবারেই ভালো চোখে নেয়নি কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। সূত্রের খবর, লকেট চট্টোপাধ্যায়ের (Locket Chatterjee) গোপন বৈঠকের প্রসঙ্গে বর্তমান রাজ্য নেতৃত্ব এর কাছে বিষয়টি জানতে চেয়েছেন কেন্দ্রীয় নেতারা। বিশেষ করে লকেট জয় প্রকাশের সঙ্গে বৈঠকের পরই কেন দল ছাড়ল জয়প্রকাশ? এই প্রশ্নই উঠেছে ভাজপার অভ্যন্তরে।গত সোমবার রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়, সায়ন্তন বসু, রীতেশ তিওয়ারি, জয়প্রকাশ মজুমদার ও সমীরন সাহার সঙ্গে লকেট চট্টোপাধ্যায় বৈঠক করেন। তারপরের দিনই জয়প্রকাশ মজুমদার দলবদল করে তৃণমূলে (Trinamool) যোগ দেন। জয়প্রকাশের দলবদল প্রসঙ্গে কার্যত রাজ্য নেতৃত্ব কে দায়ী করেছিলেন হুগলির সংসদ। তিনি বলেছিলেন,আগেও দল ছেড়ে অনেক নেতা চলে গিয়েছেন। অনেক দিন ধরেই দলের মধ্যে অভ্যন্তরীণ কিছু সমস্যা আমরা দেখতে পাচ্ছি। যাতে এই পরিস্থিতির শিকার হয়ে দল ছেড়ে কেউ চলে না যান, তার জন্য তাঁদের সঙ্গে কথা বলা উচিত। দলের এই ভাঙন রোখা উচিত। সবাইকেই রোখা উচিত। আমাদের এখন সেই কাজটাই করতে হবে। কথা বলার পরেও যদি কেউ চলে যান, সেটা তাঁর ব্যক্তিগত বিষয়। অবশ্য চাপে পড়ে লকেট কৌশলে জয়প্রকাশকে আক্রমণই করেছেন।

- Advertisement -

জয়প্রকাশের দল ছাড়ার নিন্দা করে তিনি বলেন, উনি ব্যক্তিগত সমীকরণে দল ছেড়েছেন। ব্যক্তিগত স্বার্থসিদ্ধির কথা ভেবে দল ছেড়েছেন। এরকম লোকেদের দলে না থাকাটাই ভাল।এদিকে,বুধবার সকালে দিল্লি যাওয়ার আগে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। জয়প্রকাশ মজুমদারের দলবদল নিয়ে বলতে গিয়ে তিনি বলেন, পার্টি এখন গাড্ডায় পড়ে গিয়েছে। এখন যদি কেউ দল ছেড়ে চলে যায় তবে কিছু বলার নেই। আমরা পার্টিকে দাঁড় করিয়েছি। সব পার্টি, ব্যক্তির জীবনে এরকম আসে। আমরা লড়াই করছি। আবার পার্টিকে দাঁড় করাব।ফুটবল ক্লাব বদলের মতো রাজনীতিতেও দলবদল চলছে। দলের সংগঠন যে দুর্বল হয়ে পড়েছে। তা কার্যত স্বীকার করে নিলো বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার (Sukanta Majumdar)। পূর্ব বর্ধমানে জেলার সাংগঠনিক মিটিং করতে এসে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন, দল দুর্বল হয়েছে। এটা অস্বীকার করার কিছু নেই।দলবদল নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে সুকান্ত বলেন, কে কোন দল বদল করবেন সেটা তার ব্যক্তি গত বিষয়। কেউ কেউ জামা বদলানোর মত দল বদল করেন। রাজনীতিকে পেশায় পরিণত করেছেন তারা। আমরা সেই নীতিতে বিশ্বাস করি না।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here