400 কেজি চোরাই ইলিশ আটক মুর্শিদাবাদ- পেট্রাপোলে

0

Last Updated on September 4, 2020 7:59 PM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। মুর্শিদাবাদে আটক 190 কেজি বাংলাদেশি ইলিশ। সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে পদ্মা নদী পেরিয়ে বাংলাদেশ থেকে চোরাপথে একটি নৌকায় করে ইলিশ পাচারের চেষ্টা করছিল কয়েকজন। খবর পেয়ে অভিযান চালায় বিএসএফের 141 নম্বর ব্যাটালিয়নের জওয়ানরা। নৌকাটিকে তাড়া করলে পদ্মায় ঝাঁপ দিয়ে পালিয়ে যায় ইলিশ চোরাকারবারীরা। আটক করা হয় নৌকাটিকে। সেখান থেকে উদ্ধার হয় 190 কেজি ইলিশ মাছ। বিএসএফ সূত্রে জানানো হয়েছে , একটি বস্তায় করে মাছ পাচারের চেষ্টা করছিল দুষ্কৃতীরা। পদ্মা পেরিয়ে মুর্শিদাবাদের জলঙ্গিতে ইলিশ মাছ নিয়ে আসা হচ্ছিল চোরাপথে। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে অভিযান চালানো হয়। মাছ এবং নৌকা আটক করা গেলেও পালিয়ে গিয়েছে দুষ্কৃতীরা। তাদের খোঁজে তল্লাশি চালানো হচ্ছে। পদ্মাতে নজরদারি বাড়ানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রসঙ্গত কয়েক সপ্তাহ আগেও মুর্শিদাবাদে ইলিশ মাছ বাংলাদেশ থেকে ফেরার পথে নিয়ে আসার চেষ্টা করা হয়েছিল সে ক্ষেত্রে মাছ আটক করা হয় স্থানীয় প্রশাসনের বক্তব্য এখনো বাজারে চাহিদার তুলনায় ইলিশ মাছের যোগান কিছুটা কম রয়েছে তাই চোরাপথে বাংলাদেশ থেকে ইলিশ আনার প্রবণতা বাড়ছে অতিরিক্ত মুনাফার লোভে। অন্যদিকে, পেট্রাপোল সীমান্তে বাংলাদেশ থেকে চোরাপথে ভারতে প্রবেশের মুখে ২০০ কেজি ইলিশ মাছ আটক করেছে বিএসএফ। উত্তর ২৪ পরগনা পেট্টাপোল সীমান্তের ১৫৮ নাম্বার ব্যাটেলিয়ানের কালিয়ানি বিওপির সীমান্তরক্ষী বাহিনী শুক্রবার ভোরে বরো ঝিলের কাছে পাঁচজন চোরাচালানকারীদের বাংলাদেশ থেকে ভারতে কিছু জিনিস নিয়ে অবৈধভাবে প্রবেশের চেষ্টা করতে দেখেl বিএসএফ তাড়া করলে প্লাস্টিকের তিনটি ব্যাগ রেখে বাংলাদেশের দিকে পালিয়ে যায় পাচারকারীরাl প্লাস্টিকের ব্যাগ থেকে উদ্ধার হয় ২০০ কেজি ইলিশ মাছ। যার আনুমানিক মূল্য ২ লক্ষ ৪০ হাজার টাকাl আটক হওয়া ইলিশ মাছ পেট্রাপোল কাস্টমসের হাতে তুলে দেওয়া হয় বিএসএফের পক্ষ থেকেl

- Advertisement -
Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here