আসানসোল পুরসভার সাইনবোর্ড নিয়ে ফেক নিউজ, সাম্প্রদায়িক উস্কানি, গ্রেফতার বিজেপি যুব মোর্চার রাজ্য সম্পাদক

0

Last Updated on September 12, 2020 8:52 PM by Khabar365Din

৩৬৫দিন। ফের একবার ভুয়ো খবর, ছবি-ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল করে বাংলায় অশান্তি সৃষ্টি ও আইন-শৃঙ্খলা বিঘ্নিত করার ঘৃণ্য চক্রান্ত ফাঁস হলো বিজেপির আইটি সেলের। আসানসোল পুরনিগমের সাইনবোর্ডে বাংলা উপেক্ষিত বলে ভুয়ো খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার করতে গিয়ে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হলেন বিজেপির যুব মোর্চার রাজ্য সম্পাদক বাপ্পা চট্টোপাধ্যায়। সেই গ্রেপ্তারির প্রতিবাদে পুলিশ কমিশনারের অফিসের সামনে কোভিড বিধি ভেঙে ধরনা ও বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন যুব মোর্চার রাজ্য সভাপতি তথা বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁ-সহ বেশ কয়েকজন। তাঁদেরকেও গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। যদিও সৌমিত্রকে জামিনে পরে পুলিশ ছেড়ে দেয়।পুলিশ সূত্রে খবর, বিজেপির আইটি সেল আসানসোল পুরনিগমের সাইনবোর্ডে বাংলা অক্ষরে লেখা অংশকে বাদ দিয়ে হিন্দি, ইংরেজি ও উর্দুতে লেখা অংশের ছবি সুকৌশলে তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল করে। তার পরেই পুরোনিগমের সাইনবোর্ডে বাংলা ভাষা উপেক্ষিত বলে ওই ছবিকে ঘিরে কোমর বেঁধে প্রচারে নেমে পড়ে বিজেপি। আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের সাইবার সেল তদন্তে নেমে ভুয়ো খবর প্রচারের অভিযোগে গ্রেপ্তার করেছে বাপ্পাকে। বিজেপির এই ধরনের অপচেষ্টা উপলব্ধি করেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গত ৮ সেপ্টেম্বর পুলিশ দিবসের অনুষ্ঠানে প্রত্যেক থানার আইসিকে সতর্ক করে বলেছিলেন,”সাইবার ক্রাইম গুলোকে ভালো করে দেখতে হবে। এটা এখন সবথেকে বিপদজনক অপরাধ। এটা দাঙ্গা বাধিয়ে দিতে পারে হত্যা করিয়ে দিতে পারে।” শুধু তাই নয়, প্রশাসন সূত্রে খবর,কয়েকটি রাজনৈতিক দলের প্রত্যক্ষ মদতে ফের শান্ত জঙ্গলমহলে মাথাচাড়া দিচ্ছে মাওবাদীরা কর্মকাণ্ড। এমনকি ভিন রাজ্যের দুষ্কৃতীরাও ঢুকছে বাংলায়। তাই মুখ্যমন্ত্রী স্পেশাল টাস্কফোর্স ও কাউন্টার ইনসার্জেন্সি ফোর্সকেও আরো ভালো করে কাজ করার কথা বলেছেন। প্রসঙ্গত, নাইট কারফিউ করে সরকার দুর্গাপুজো করতে দেবে না বলে সম্প্রতি ভুয়া খবর প্রচারের অভিযোগে বিজেপির আইটি সেলের দুই সক্রিয় কর্মী গ্রেপ্তার হয়েছে পুলিশের হাতে। এমনকি হুগলির ভদ্রেশ্বরে তেলিনিপারার দাঙ্গায় পাকিস্তানের ছবি ব্যবহার, ধুলাগড়, বসিরহাট সহ একাধিক দাঙ্গায় আইটি সেল যে ভুয়ো খবর, ছবি-ভিডিও ভাইরাল করে উস্কানি দিয়েছে তার প্রত্যেকটারই প্রমাণ হাতে এসেছে পুলিশের।

- Advertisement -
Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here