শহরে চিকেনের দাম হু হু করে বাড়ছে, নিউটাউনের বাজারে রেকর্ড ২৫০ টাকা

0

Last Updated on August 25, 2021 11:25 PM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। গত ৪-৫ মাস ধরে রেকর্ড তৈরি করেছে নিউটাউনের বাজার। সরকারি নিয়ন্ত্রণহীন এই বাজারে মুরগির ব্যবসায়ীরা বুক ফুলিয়ে ২৫০ টাকায় কাটা মুরগি বেচছে। পাইকারি বাজারে চিকেন মূল্য যাই হোক কেন থোড়াই কেয়ার নিউটাউনের বিক্রেতাদের। এই ২৫০ টাকা রেকর্ড মূল্য বৃদ্ধি কোনও কোনও দিন ২৬০ টাকাতেও পৌঁছেছে। প্রভাব ছড়িয়ে পড়েছে অন্যান্য বড় বাজারেও। দিনের পর দিন কোণঠাসা হচ্ছে ব্রয়লার চিকেন। ভোজনরসিকদের ইলিশ আক্ষেপ কিছুটা মেটাচ্ছিল চিকেন এবং মাটন। মাটনের দাম নিত্যদিন না বাড়লেও মধ্যবিরে রোজগেরে মেনুতে সহজে জায়গা পায়নি পাঁঠার মাংস। অন্যদিকে, মূল্যবৃদ্ধির তালিকায় বরাবরই সামিল চিকেন। লকডাউন (২০২০) শুরুর পর থেকেই বাজারে মুরগির মাংসের দাম পেরিয়েছে দুশোর গণ্ডি। এখানেই থেমে নেই। এবার সেই দৌড় পৌঁছতে চলেছে তিনশোর দোরগোড়ায়। কারণ, শহরের বিভিন্ন প্রান্তে চিকেন বিকোচ্ছে কোথাও ২৩০ টাকা আবার কোথাও ২৫০ টাকা কেজি দরে। এর মাঝেই কেউ কেউ আবার করোনা পরিস্থিতির দোহাই দিয়ে আরও কিছুটা বেশি মুনাফা লুটে নিচ্ছেন। কিন্তু, দাম বৃদ্ধির কারণ কি? এই প্রশ্নের উর দিয়ে পোল্ট্রি ফার্ম অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মদন মাইতি জানান, এখনই দাম কমার কোনরকম সম্ভাবনা নেই। নভেম্বর পর্যন্ত এই অবস্থা থাকবে। তারপর, দাম কিছুটা নামলেও নামতে পারে। কারণ ব্যাখ্যা করে তিনি বলেন, দাম বৃদ্ধির অন্যতম প্রধান কারণ মুরগির খাবারের দাম বেশি। করোনাকালে দেশে তৈলবীজ উৎপাদন সেভাবে হয়নি। উৎপাদন হলেও খুবই কম পরিমাণে। এই বীজের খোল থেকেই মুরগির খাবার তৈরি হয়। এবারে (তৈলবীজ) যোগান কম থাকায় এখন মুরগির

- Advertisement -

খাবারের দাম কোথাও দ্বিগুণ কোথাও তিনগুণ। ফলে, চাষিরা অনেকেই চাষ করছেন না। স্বাভাবিকভাবেই উৎপাদনের পরিমাণ কমলে মাংসের যোগানে ঘাটতি দেখা যাচ্ছে। ফলে, দাম বাড়ছে। নভেম্বরের পরই মূলত ভুট্টা, সোয়াবিনের মরশুম শুরু হয় (দেশে)। তারপর, কিছুটা হলেও দাম কমার সম্ভাবনা রয়েছে। অন্যদিকে, মূল্যবৃদ্ধির এই তাণ্ডবে নাভিশ্বাস উঠেছে ক্রেতাদের। নিউটাউন বাজারে এসে এক ক্রেতা জানান, গত চার মাসে সেখানে মুরগির মাংসের দাম অপরিবর্তিত। ২৫০ টাকা কেজি দরে বিকোচ্ছে মাংস। এদিকে, শহরের উত্তর কিংবা দক্ষিণ, সব প্রান্তেই একই ছবি। মানিকতলা বাজারে এসে বিমলবাবু জানান, লকডাউন শুরুর পর থেকেই দাম বেড়েই চলেছে। এখানে চিকেন গত কয়েক মাসে ২০০ এর নীচে যায়নি। সাধারণের পক্ষে এই মূল্যবৃদ্ধি অনেকটা অভিশাপের মত।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here