ইলেকট্রিক ট্যাপিং, হুকিং বন্ধ করতে বদ্ধপরিকর কলকাতা পুরসভা, তারের জঞ্জাল মুক্ত হবে শহর

0

৩৬৫ দিন। নারকেলডাঙ্গায় রাজা নারায়ণ স্ট্রিটে অতিবৃষ্টির পরে শনিবার ইলেকট্রিকের পোস্ট থেকে বেরোনো তার ছুঁয়ে মৃত্যু হয় এক বালকের। ইতিমধ্যেই এই ঘটনা ঘটার সঙ্গে সঙ্গেই এক কমিটি গঠন করে মৃত্যুর কারণ তদন্ত করতে উদ্যোগী হয় প্রশাসন। কমিটিতে রয়েছেন ‌ পশ্চিমবঙ্গের স্টেট ইলেকট্রিসিটি বোর্ডের একজন শীর্ষ পর্যায়ের আধিকারিক, সিইএসসি -এর এক ইঞ্জিনিয়ার, নারকেলডাঙ্গা থানার ওসি এবং কলকাতা পুরসভা। আগামীকাল সোমবার এই তদন্ত কমিটি এক পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট জমা দেবে বলে জানা গিয়েছে।

- Advertisement -

সূত্রের খবর, প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছে, নারকেলডাঙ্গায় যে এলাকায় ওই ইলেকট্রিকের পোস্টটি রয়েছে, সেখানে বেশ কিছু টুলু পাম্প চলে। ‌যার ফলে ওই এলাকায় এমনিতেই খানিকটা জল জমে থাকে। অন্যদিকে নারকেলডাঙ্গার ওই এলাকায় ইলেকট্রিক তার থেকে ট্যাপিং এর অভিযোগ উঠেছে। ওই এলাকায় বেশ কিছু পোস্টে কিংবা পোষ্টের পাশে বেশ কয়েকটি বাড়িতে তারের জঞ্জাল রয়েছে। ‌শহরকে তারের জঞ্জালমুক্ত করতে বিশেষভাবে উদ্যোগী হয়েছে কলকাতা পুরসভা।

একইসঙ্গে কলকাতা জুড়ে ইলেকট্রিক তারের ট্যাপিং, হুকিং বন্ধ করতে বিশেষ অভিযানে নামছে কলকাতা পুরসভা। পুরসভার বিদ্যুৎ বিভাগের মেয়র পারিষদ সন্দীপ বক্সী জানালেন, গোটা কলকাতা জুড়ে ইতিমধ্যেই প্রচার অভিযান শুরু করেছে কলকাতা পুরসভা। কোনভাবেই ইলেকট্রিকের তার থেকে যেন ট্যাপিং বা হুকিং না হয় সেদিকে বিশেষভাবে নজর রেখেছে কলকাতা পুরসভা। ইন্সপেকশনে গিয়ে কয়েকটি অঞ্চলে ইলেকট্রিকের তার থেকে ট্যাপিং করতে দেখতে পান খোজ মেয়র পারিষদ বিদ্যুৎ সন্দীপ বক্সী সহ পুরসভার অন্যান্য আধিকারিকেরা।

সেই সকল অঞ্চলে প্রত্যেকটি বাড়িতে কীভাবে ইলেকট্রিকের তার প্রয়োজনে পৌঁছে দেওয়া যায় তার সব রকম প্রচেষ্টা করছে কলকাতা পুরসভা। ট্যাপিং বা হুকিং করলে নির্দিষ্ট ব্যক্তির বিরুদ্ধে যে জরিমানা করা হবে সে কথা বারবার প্রচারে বলা হচ্ছে পুরসভার তরফে। অন্যদিকে কলকাতাকে তারের জঞ্জাল থেকে মুক্ত করতে উদ্যোগী হয়েছে কলকাতা পৌরসভা। ‌ কিন্তু এই কাজ ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গেলেও, বেশ কিছু জায়গায় একটি তারের সঙ্গে অপর তার এমন ভাবে জড়িয়ে আছে সে কাজ করতে খানিকটা হলেও সময় লাগবে।

যদিও ইতিমধ্যেই যে সকল জায়গায় অতি বৃষ্টির ফলে জল জমে সেই সকল নিচু এলাকায় যে ইলেকট্রিকের পোস্টগুলি রয়েছে সেগুলিকে চিহ্নিত করা হয়েছে পুরসভার তরফে। ‌মেয়র পারিষদ বিদ্যুৎ সন্দীপ বক্সী বলেন, আমরা কলকাতা শহরকে তারের জঞ্জাল থেকে মুক্ত করবোই। অন্যদিকে অতি বৃষ্টির ফলে নিচু এলাকায় যেন জল না জমে সেদিকে পুরসভার নিকাশী বিভাগকে বিশেষভাবে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে পুরসভার তরফে। ‌

আগামীকাল নারকেলডাঙ্গা মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট জমা দেবে বিশেষ তদন্তকারী কমিটি। তারপরে এক্সপার্ট কমিটি ঠিক করবে, আরো কী কী উপায় ইলেকট্রিকের তার থেকে ট্যাপিং বা হুকিং বন্ধ করতে হয় সে বিষয়ে বিস্তারিত রিপোর্ট দেবে এক্সপার্ট কমিটি। আর যেন এই ধরনের দুর্ঘটনা না ঘটে, সেদিকে নজর রেখেছে কলকাতা পুরসভা। ‌

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here