মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরেকে চড় মারার হুমকি, গ্রেফতার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নারায়ন রানে

0

Last Updated on August 24, 2021 7:09 PM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। গ্রেপ্তার হলেন নরেন্দ্র মোদি মন্ত্রিসভার ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প মন্ত্রী নারায়ন রানের বিরুদ্ধে। মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী নারায়ন রানেকে গ্রেফতারের জন্য সকালেই বিশাল পুলিশবাহিনী পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছিল সান্তাক্রুজে রাণের বাসভবনের কাছে জুহু তারা রোডে। তাঁর বাসভবনের বাইরে কার্যত ঘিরে ফেলেছে মুম্বই পুলিশ। আজ সকাল থেকেই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বর্তমান কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নারায়ণের বাসভবনের বাইরে তুমুল বিক্ষোভ কর্মসূচিতে সামিল হয়েছেন হাজার হাজার শিবসেনা নেতা ও কর্মী।

- Advertisement -


মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে সম্পর্কে আপত্তিকর মন্তব্য করার অভিযোগেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নারায়ণ রানের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়। মহারাষ্ট্রের পুণের চতুরশ্রীঙ্গি থানায় রানের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই এফআইআর করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প মন্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে শিবসেনার শাখা সংগঠন যুব সেনা। যুবসেনার দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতেই এফআইআর করা হয়েছে। মহারাষ্ট্র পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, লিখিত অভিযোগের বয়ান এর প্রেক্ষিতে রানের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৫৩ ও ৫০৫ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।


প্রসঙ্গত, গতকাল রায়গড়ে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী সম্পর্কে বিতর্কিত মন্তব্য করেন রানে। জন আশীর্বাদ যাত্রা চলাকালীন তিনি বলেন, মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে জানেন না, কোন বছর ভারত স্বাধীনতা পেয়েছিল। এটা লজ্জার বিষয়। ১৫ অগাস্ট ভাষণ দেওয়ার সময় তিনি অন্যদের জিজ্ঞাসা করেন, এবার স্বাধীনতার কত বছর। আমি যদি সেখানে থাকতাম, তাহলে তাঁকে কষিয়ে চড় মারতাম। তবে গোটা মহারাষ্ট্র জুড়ে নারায়ণ রানের বিরুদ্ধে জনমত তৈরি হওয়ার পরেই তার সঙ্গে দূরত্ব বাড়াতে শুরু করে ভাজপা। মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফাড়ণবিস বলেন, পুলিশকে বলব আইনমাফিক কাজ করুক তারা। মুখ্যমন্ত্রী সম্পর্কে একটু সংযত ভাবে মন্তব্য করা উচিত ছিল তাঁর। আরও ভাল ভাবে বলতে পারতেন।
এই মন্তব্যের জন্যই রানের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। এই ঘটনা ঘিরে উত্তাল মুম্বই সহ গোটা মহারাষ্ট্র। মহারাষ্ট্রের নাসিকেও সাইবার ক্রাইম বিভাগে শিবসেনার অভিযোগের ভিত্তিতে রানের বিরুদ্ধে এফআইআর করা হয়েছে। রানেকে গ্রেফতারের নির্দেশ দিয়েছেন পুলিশ কমিশনার দীপক পাণ্ডে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে গ্রেফতার করার জন্য ডিসিপি সঞ্জয় বারকুণ্ডের নেতৃত্বে একটি দল গঠন করা হয়েছে।
নারায়ণ রানে যদিও ভুল স্বীকার করতে রাজি নন। শেষ টুইটেও তিনি বলেছেন, আমি কোনও অন্যায় করিনি। কেউ যদি আমার অবমাননা করে আমি তাঁর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করব। মহারাষ্ট্রের শাসক জোটের অন্যতম শরিক দল এনসিপি নেতা নবাব মালিক বলেছেন, আইনের থেকে বড় কিছু নেই। এর বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
শাসক জোটের আরেক শরিক কংগ্রেস নেতা জিতেন্দ্র আওহাদ বলেন, নারায়ণ রানে মুখ্যমন্ত্রী নিয়ে যে মন্তব্য করেছেন তা খুবই লজ্জার। আর তাঁর মতো একজন প্রবীণ নেতার বোঝা উচিত মুখ্যমন্ত্রিত্ব একটি সাংবিধানিক পদমর্যাদা। যে পথে তিনিও একদিন বহাল ছিলেন। ফলে এই পদের অবমাননাকর মন্তব্য আসলে গোটা রাজ্যের পক্ষেই অপমানজনক অবমাননাকর।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here