আগরতলায় বিস্ফোরক ব্রাত্য
ত্রিপুরার বিজেপি বিধায়ক তৃণমূলে যোগাযোগ রাখছেন

0

Last Updated on September 2, 2021 12:35 AM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। আগরতলা। বিজেপির অনেক বিধায়ক আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। অনেকের সাথে আমাদের কথা চলছে। এর মধ্যে কাকে নেওয়া হবে, না নেওয়া হবে, সেটা দলীয় নেতৃত্ব ঠিক করবে। ত্রিপুরাতে বিজেপি আর মাত্র কয়েক মাসের অতিথি মাত্র। ত্রিপুরায় বিজেপির আর কোনও জনভিত্তি নেই। ত্রিপুরায় পৌঁছেই এমন বিস্ফোরক দাবি করলেন তৃণমূল নেতা তথা বাংলার শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু।একদিকে যখন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের বিরুদ্ধে সুদীপ রায় বর্মন এর নেতৃত্বে ভাজপা বিধায়কদের একাংশ কার্যত প্রকাশ্যে বিদ্রোহ ঘোষণা করার ফলে টালমাটাল অবস্থায় এসে দাঁড়িয়েছে ভাজপা সরকার, তার মধ্যেই তৃণমূলের এই দাবি ঘিরে ত্রিপুরার রাজনৈতিক পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে।

- Advertisement -


আগামী ২০২৩ সালে ত্রিপুরার বিধানসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূল গোটা রাজ্য জুড়ে প্রচারের পাশাপাশি সদস্য সংগ্রহ এবং সংগঠন ঢেলে সাজানোর কাজ শুরু করলো আজ থেকেই। তার জন্য আজ বিকেলেই শিলচর থেকে আগরতলা এসে পৌঁছান কয়েকদিন আগে তৃণমূলে যোগ দেওয়া সুস্মিতা দেব। আগামীকাল সকাল থেকেই ত্রিপুরার ৬০ বিধানসভা এলাকায় সফর করবেন সুস্মিতা। পাশাপাশি ত্রিপুরায় তৃণমূলের সদরদপ্তর তৈরীর জন্য প্রস্তুতি শুরু হয়েছে জোর কদমে। জানা গিয়েছে দিল্লি থেকে চলতি সপ্তাহেই ত্রিপুরা এসে দলীয় কার্যালয় উদ্বোধনের পাশাপাশি রাজ্যের সংগঠন ঢেলে সাজিয়ে বিভিন্ন সাংগঠনিক নেতৃত্তের নাম ঘোষণা করতে পারেন দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।
আগামী ১৫ দিন ধরে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে গিয়ে এই কাজ করবেন তৃণমূলের নেতা কর্মীরা। এই কর্মসূচিতে অংশ নেবেন তৃণমূলের অন্যান্য শীর্ষ নেতারা। মিটিং, মিছিল থেকে শুরু করে একাধিক আলোচনা ও বৈঠকে যোগ দেবেন তাঁরা। এই কাজে যোগ দিতেই ত্রিপুরায় এলেন সুস্মিতা। এখানে ১৫ দিন ব্যাপী এই কাজে যোগ দেবেন তিনি। সেই সঙ্গে আরও বেশ কিছু দলীয় কর্মসূচি রয়েছে তাঁর। আজ সুস্মিতা বলেন, ২০১৮ সালে ত্রিপুরার ক্ষমতায় আসার আগে বিজেপি নেতৃত্ব ত্রিপুরার মানুষের কাছে যে সমস্ত নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল তার কোনোটাই পূরণ করেনি।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here