ইয়ে জৌলুস হ্যায় ইয়া জানাজা,জুহু কবরস্থানে সমাধিস্ত হবেন দিলীপ কুমার

0

Last Updated on July 7, 2021 4:46 PM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। ১৯৫৫ সালে এই সান্তাক্রুজের রাস্তা দিয়ে জৌলুস বেরিয়েছিল দেবদাস মুক্তির পর। ১৯৫৪ সালে লাহোর ও করাচি থেকে আসা উদ্বাস্তুদের সান্তাক্রুজের ভাকোলা রিফিউজি ক্যাম্প থেকে সান্তাক্রুজের কবরস্থান পর্যন্ত সেই জৌলুস ছিল দিলীপ কুমারের জন্যই। হিন্দি ছবির চিত্রনাট্যের শেষ দৃশ্যের মতোই আজ দিলীপ কুমারের জানাজা এই পথ দিয়েই যাবে। শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে জুহু কবরস্থানে। তবে কোভিড পরিস্থিতির জন্য আজ শেষ লগ্নে মহা তারকার পাশে থাকতে পারবে না তাঁর অগণিত অনুরাগীরা। গালিবের শায়েরিতে মিশে থাকবে দিলীপ সাহাবের জন্য শেষ অশ্রুজল। হিন্দি সিনেমার স্বর্ণযুগের শেষ মহীরুহ পতন বলা যায়। রাজ কাপুর, দেব আনন্দ, রাজেশ খান্না, শশী, শাম্মিরা আগেই চলে গিয়েছেন। অসংখ্য অনুরাগীদের শুভকামনা নিয়েও শতায়ু হওয়ার আগেই ৯৮ তে থেমে গেলেন মুম্বাই চলচ্চিত্র জগতের প্রিয় দিলীপ সাহাব।
১৯৯৯ সালে করাচিতে নওয়াজ শরিফের কাছে ভারতের তরফ থেকে আলোচনার জন্য যে ফোনটি গিয়েছিল, তার ওপর প্রান্তে ছিলেন দিলীপ কুমার। কার্গিল যুদ্ধে ব্যাপক সমালোচিত নওয়াজ রাজি ছিলেন না অটলবিহারী বাজপেয়ীর সঙ্গে কথা বলতে। নিজের বায়োগ্রাফিতে নওয়াজ লিখেছেন, টেলিফোনের উল্টোদিকে জনাব দিলীপসাহাব, আমি কেন, জিন্না সাহাবও না বলতে পারতেন না। এটাই দিলীপ কুমারের ক্যারিশমা। বুধবার সকাল সাড়ে সাতটায় হিন্দুজা হাসপাতালের পক্ষ থেকে মেডিকেল বুলেটিনে এই সংবাদ জানানো হয়। দীর্ঘদিন ধরেই বার্ধক্যজনিত অসুস্থতায় ভুগছিলেন দিলীপ কুমার। গত ৩০ জুন তাঁকে মুম্বইয়ের হিন্দুজা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। দিন দুয়েক আগেই টুইটারে স্ত্রী সায়রা বানু জানিয়েছিলেন যে, দিলীপ কুমারের শারীরিক পরিস্থিতি স্থিতিশীল। অনুরাগীরাও আশায় ছিলেন যে এবারও হয়তো অসুস্থতাকে হারিয়ে ফিরে আসবেন অভিনেতা। কিন্তু হল না। কফিন বন্দি হয়েই মৃতদেহ আনা হবে পালি হিলের বাড়িতে। বুধবার বিকেল ৪ টায় প্রবীণ অভিনেতার শেষকৃত্য শুরু হবে। ঠিক ৫ টায় সান্তাক্রুজের জুহু কবরস্থানে সমাধিস্থ করা হবে অভিনেতাকে।

- Advertisement -
Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here