মমতার সেনাপতি
অভিষেক ত্রিপুরায়

0
311

আগরতলার রাস্তায় পুলিশ আর

ভাজপা গুন্ডাদের হুঙ্কার ভেদ করে

ত্রিপুরেশ্বরী মন্দিরে পুজো দিলেন


আগরতলা থেকে

রিপোর্ট : সৌগত মণ্ডল | ছবি : অমিত বন্দ্যোপাধ্যায়


খেলা শুরু হয়ে গেল ত্রিপুরায়। আগামী বছর ত্রিপুরা বিধানসভা নির্বাচনে ভাজপা শাসিত ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবকে টক্কর দিতে প্রায় পৌঁছে গেলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। কথিত আছে, ত্রিপুরার যে কোনও ভালো কাজ শুরু হয় মাথাবাড়িতে ত্রিপুরেশ্বরী দেবীর আশীর্বাদ নিয়ে। তাই এই রাজ্যে জাঁকিয়ে বসার আগে তৃণমূলও নতুন করে আবার যাত্রা শুরু করছে মাথাবাড়ি থেকেই। অবশ্য উদয়পুর, মাথাবাড়ি অঞ্চলে ইতিমধ্যেই একাধিক পরিবার যোগ দিয়েছেন তৃণমূলে।

ত্রিপুরায় বারেবারে আক্রান্ত অভিষেক

গত বিধানসভা নির্বাচনে বাংলায় যেভাবে নন্দীগ্রামের ভোটে তৃণমূল প্রার্থী মমতাকে শারীরিক ভাবে আক্রমণ করে পা ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল ভাজপা আশ্রিত গুন্ডাদের বিরুদ্ধে, একইভাবে ভাজপা শাসিত ত্রিপুরায় তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এর প্রথম সফর আটকানোর জন্য চেষ্টা কসুর করল না ভাজপা। আগরতলা এয়ারপোর্ট থেকে সড়ক পথে ত্রিপুরেশ্বরী মন্দিরে যাওয়ার পথে বারে বারে তার গাড়ি আটকে বিক্ষোভ দেখানো কর্মসূচি নেয় ত্রিপুরা ভাজপা। বিশ্রামগঞ্জ চোরিলামে স্কুল বন্ধ থাকা সত্বেও স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের অভিষেকের রাস্তা আটকে অবরুদ্ধ করানোর চেষ্টা করে ভাজপা। লকডাউন এর জেরে যেখানে ত্রিপুরা জুড়ে কারফিউ চলছে সেখানে বন্ধু স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা কিভাবে অভিষেকের যাওয়ার পথ আটকে রাস্তায় ইউনিফর্ম পড়ে বসে গেল তার কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি ত্রিপুরার প্রশাসনিক আধিকারিকরা।
বারেবারে বাধাপ্রাপ্ত এবং আক্রান্ত হওয়ার পরে গাড়িতে বসেই অভিষেক ভাজপা আশ্রিত সমাজবিরোধীদের আক্রমণের ভিডিও তুলে ধরে তীব্র ব্যঙ্গাত্মক ভাষায় টুইট করেন, বিপ্লব দেবের শাসনে ত্রিপুরার গণতন্ত্র! বিপ্লব দেব দারুন করেছেন ত্রিপুরাকে নতুন উচ্চতায় তুলে নিয়ে যাওয়ার জন্য!

বিজেপির মুখে গণতন্ত্রের কথা মানায় না

দিন দুই আগে মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, অতিথি দেব ভব। এখানে এসে অতিথি দেব ভব-র নিদারুণ উদাহরণ দেখলেন। বিজেপি নেতারা তো বাংলায় এসে গণতন্ত্র নিয়ে গলা ফাটান। এখানে এসে বোঝা যাচ্ছে ত্রিপুরার বিজেপি সরকার আসলে গণতন্ত্র বলতে কী বোঝাতে চাইছেন! ভাজপা শাসিত ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব এর উদ্দেশ্যে কটাক্ষ করেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। আগরতলা এসে বারে বারে ভাজপা কর্মীদের অবরোধ এবং বিক্ষোভের পাশাপাশি গুন্ডামির সামনে পড়েন অভিষেক। অভিষেকের গাড়ি দাঁড় করিয়ে তার গাড়ির বনেটে উঠে লাঠি দিয়ে গাড়ির কাঁচ ভাঙার চেষ্টা করা হয়। এমনকি ভাজপা কর্মীরা পতাকার তলায় থাকা ডান্ডা দিয়ে তাকে আক্রমণের চেষ্টাও করে একাধিক জায়গায়। প্রতিটি জায়গাতেই ত্রিপুরা পুলিশ কার্যত নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করেছে। এরপরে অভিষেক বলেন, এই বিজেপি নাকি বাংলায় গিয়ে গণতন্ত্রের কথা শেখায়। বিজেপির কাছে অন্তত গণতন্ত্রের কথা শুনতে রাজি নই।

মমতা ও অভিষেকের পোস্টার ছেঁড়া

ত্রিপুরার বিধানসভা নির্বাচনের আগে একদিকে যেমন তৃণমূল ধীরে ধীরে ত্রিপুরায় জাঁকিয়ে বসতে শুরু করেছে ততই তৃণমূল আতঙ্কে দিশেহারা হয়ে পড়েছে ভাজপা। অভিষেকের ত্রিপুরা সফরের আগেই গতকাল সারারাত ধরে তৃণমূলের যুব নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্য, সুদীপ রাহা এবং জয়া দত্ত এখানকার তৃণমূল কর্মীদের নিয়ে আগরতলার প্রতিটি প্রান্তে মমতা এবং অভিষেকের ছবি সম্বলিত যে সমস্ত পোস্টার টাঙ্গিয়েছিলেন তাঁর অধিকাংশ ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে। আচ্ছা সকালে অভিষেকের আগেই ত্রিপুরা পৌঁছে যান রাজ্যের দুই মন্ত্রী ব্রাত্য বসু ও মলয় ঘটক। সঙ্গে রয়েছেন তৃণমূলের আইএনটিটিইউসি রাজ্য সভাপতি ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়। আগরতলা পৌঁছয় মমতার ছবি ও ফ্লেক্স ছেঁড়া নিয়ে তীব্র নিন্দা করে ব্রাত্য বসু বলেন, বিজেপি ভয় পেয়েছে।

ত্রিপুরেশ্বরী মন্দিরে অভিষেক

প্রাচীনকালে ত্রিপুরার মহারাজা যুদ্ধজয় যাওয়ার আগে প্রায় পাঁচ শতাব্দী পুরনো 51 পীঠের এক পিঠ ত্রিপুরেশ্বরী মন্দিরে পুজো দিয়ে মা চন্ডী আশীর্বাদ নিয়ে যেতেন। সেই পরম্পরা এখনো চলছে। বাংলার বাইরে উত্তর-পূর্ব ভারতের প্রথম রাজ্য হিসেবে ত্রিপুরা জয় বেরোনোর আগে কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি শুরু করার আগে ত্রিপুরেশ্বরী মন্দিরে যাবতীয় আচার উপচার মেনে মা চণ্ডীর কাছ থেকে বাংলায় এবং ত্রিপুরার মানুষের মঙ্গল কামনার পাশাপাশি ত্রিপুরা জয়ের আশীর্বাদ চেয়ে নিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।
ত্রিপুরেশ্বরী মন্দিরের প্রধান পুরোহিত আশীষ চক্রবর্ত্তী জানালেন, রাজনৈতিক বা সামাজিক ভেদাভেদ না মেনেই মা ত্রিপুরেশ্বরী মন্দিরের ছুটে আসেন সকলে। মায়ের কাছে অভিষেক পুজো দিয়েছেন নিষ্ঠা সহকারে। মা চন্ডীর কাছে যা চেয়েছেন তার সেই মনস্কামনা অবশ্যই পূর্ণ হবে।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here