আগরতলায় আইপ্যাক টিমের বিরুদ্ধে সমন, ব্রাত্য’র ডাক- বামপন্থীরা এগোন

0

Last Updated on July 28, 2021 6:45 PM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। তৃণমূলের ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোরের আইপ্যাক সংস্থার ২৩ জন আগরতলায় পৌঁছানোর পর থেকেই তাদের বিরুদ্ধে প্রতিহিংসামূলক আচরণ শুরু করেছে ভাজপা শাসিত বিপ্লব দেবের সরকার। কোভিড টেস্টের নামে গৃহবন্দি করে রাখার পরে প্রত্যেকেই কোভিড নেগেটিভ হওয়া সত্বেও তাদের বিরুদ্ধে প্রকারের ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট বা মহামারী আইনে মামলা দায়ের করে গ্রেফতার করার চেষ্টা শুরু করলো ত্রিপুরা পুলিশ। প্রসঙ্গত, ত্রিপুরার পুলিশের দাবি, করোনা সংক্রমনের সময় ভিন রাজ্য থেকে এসেছে বলেই তাদের এক জায়গায় রেখে করোনা পরীক্ষা করা হচ্ছে। যদিও ওই কর্মীরা কোভিড নেগেটিভ সার্টিফিকেট নিয়েই ত্রিপুরা গিয়েছিলেন। ত্রিপুরা রাজ্যের তরফে করোনা পরীক্ষা করা হলেও ওই ২৩ জনেরই কর্মীর করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। এরপরে দিল্লি থেকে মমতা এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানানোর পাশাপাশি দলের নেতাদের একটি প্রতিনিধিদল রিপোর্ট পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেন। আজ সকাল ৯.২০ মিনিটে০ কলকাতা থেকে বিমান ধরেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু, আইনমন্ত্রী মলয় ঘটক এবং শ্রমিক সংগঠনের নেতা ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ পাশাপাশি বিভিন্ন সূত্রে জানা গিয়েছে ত্রিপুরা পুলিশ এই ধরনের প্রতিহিংসামূলক আচরণ করতে থাকলে আগামী দু-একদিনের মধ্যেই ত্রিপুরায় আসবেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক। ত্রিপুরায় পৌঁছে আইনমন্ত্রী মলয় ঘটক বলেন, মমতাই পারেন ত্রিপুরার সুদিন আনতে। ত্রিপুরার মানুষ বহু অত্যাচার দেখেছে। এখানে লেনিনের মূর্তি ভাঙা হয়েছে। পার্টি অফিস ভাঙচুর হয়েছে। মানুষের মুখকে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। একটাই মুখ ভারতে প্রতিবাদীদের সঙ্গে থেকেছে। তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তাই আগামীদিনে তাঁরই নেতৃত্বে তৃণমূল কংগ্রেস ত্রিপুরার মানুষের হয়ে কাজ করবে। তাই আমরা ত্রিপুরার মানুষের পাশে দাঁড়াতে এসেছি। আইএনটিটিইউসি রাজ্যসভাপতি ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায় এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করে বলেন, তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে এখানে এসেছি। তার কারণ গণতন্ত্রে বিরোধীদের কথা গুরুত্বপূর্ণ।

- Advertisement -
Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here