হাওড়ায় কেক কেটে আড়ম্বরে পালন করা হবে কিশোর কুমারের জন্মদিন।

0

৩৬৫দিন। আগামী ৪ঠা আগস্ট বৃহস্পতিবার শ্রদ্ধেয় শিল্পী কিশোর কুমারের জন্মদিন কেক কেটে আড়ম্বরের সঙ্গে পালিত হবে হাওড়ায়। ওইদিন বার্থডে কেক কেটে সেলিব্রেশন থেকে শুরু করে গান, দিনভর অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। মধ্য হাওড়ার কালিবাবুর বাজার “ফিউশন” এবং “হাওড়া তরুণ দল” এর যৌথ প্রয়াসে এই প্রথমবার হাওড়ার বুকে কিশোর কুমার’কে স্মরণ করে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

- Advertisement -

ওইদিন সন্ধ্যায় এক অনুষ্ঠানে বার্থডে কেক কেটে শ্রদ্ধেয় কিশোর কুমারের জন্মদিন পালন হবে। এবং পাড়ার সকল অনামী শিল্পী যারা কখনো গান শেখেননি বা মঞ্চে গাননি তাঁরা তাদের মতো করে ওনার গান গেয়ে কিশোর কুমারের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন। ১৯২৯ এর ওই বিশেষ দিনেই মধ্যপ্রদেশের খান্ডোয়াতে কিংবদন্তী এই শিল্পী জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর শিল্পের মাধ্যমে তিনি সারা ভারতবর্ষ তথা সমগ্র বিশ্বকে সমৃদ্ধ করেছেন তিনি।

একাধারে তিনি ছিলেন নায়ক, অভিনেতা, নির্দেশক, প্রযোজক, সঙ্গীত পরিচালক, গায়ক সর্বোপরি একজন প্রাণোচ্ছল বিনোদনকারী। তিনি শ্রদ্ধেয় আভাস কুমার গাঙ্গুলী আমাদের সকলের প্রিয়, সকলের আন্তরের প্রানের মানুষ কিশোর কুমার। হাওড়ায় ওই অনুষ্ঠান সম্পর্কে শেখর মুখোপাধ্যায়, শ্যামল আঢ্য জানান, আমরা এবারই প্রথম এতো বড়ো আকারে কিশোর কুমারের জন্মদিন অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছি।

কিশোর কুমার এমন একজন প্রতিভা বিগত দিনেও তিনি প্রাসঙ্গিক ছিলেন। বর্তমানেও প্রাসঙ্গিক এবং আগামী ভবিষ্যতেও ওনার প্রাসঙ্গিকতা এবং জনপ্রিয়তা বজায় থাকবে আমাদের অটুট বিশ্বাস।

কিশোর কুমারকে শোনেননি বা কোনও মাধ্যমে দেখেননি এটা বোধহয় কোনও প্রজন্মেই খুঁজে পাওয়া যাবেনা। ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে ওনার অবদান অনস্বীকার্য। তাই সমস্ত প্রজন্মের মানুষের মণিকোঠায় তিনি সর্বদা স্বর্ণোজ্জ্বল ছিলেন, আছেন এবং থাকবেন। কিশোর কুমারের শিল্পী সত্তা এবং ব্যক্তি সত্তা নিয়ে আলোচনা করতে বসলে বোধহয় এক যুগও কম পড়বে। আমরা এই অমর শিল্পীকে স্মরণ করতে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছি।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here