লাতিন আমেরিকার ইতিহাসে
সর্বসেরা শ্রদ্ধাজ্ঞাপন

0
386

(বাঁদিকে) এই কফিনে করেই মারাদোনার বডি নিয়ে যাওয়া হল কাসা রশালাে প্যালেসে। শনিবার পর্যন্ত এখানেই তাঁর দেহ শায়িত থাকবে সাধারণ মানুষের শ্রদ্ধা জানানাের জন্য। (ডানদিকে) রাজকীয় এই বাসভবন মহামারীর কারণে বন্ধ ছিল সাড়ে আট মাস। কিন্তু মারাদোনার জন্য খুলে দেওয়া হচ্ছে এই প্যালেস। এই প্যালেসেই শায়িত থাকবেন ফুটবলের জাদুকর, আর্জেন্টিনার জাতীয় বীর। এমনটাই সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন। আদপে রাষ্ট্রপতির কার্যালয় হিসাবে ব্যবহৃত এই মধ্যযুগিয় রাজ প্রাসাদটিতে এই প্রথমবার কোনও সাধারণ নাগরিকের জন্য বরাদ্দ হল। দিয়েগােকে জাতীয় বীর ঘােষণা করার পরেই এই সিদ্ধান্ত। অন্তত ৮ লক্ষ মানুষ আসবেন শেষ শ্রদ্ধা জানাতে। আজ সরকারি কফিনে করেই মারাদোনার বডি নিয়ে যাওয়া হল কাসা রশালাে প্যালেসে। শনিবার পর্যন্ত এখানেই তাঁর দেহ শায়িত থাকবে সাধারণ মানুষের শ্রদ্ধা জানানাের জন্য।

- Advertisement -

৩৬৫ দিন। ২৪ ঘন্টা কেটে গেলেও ফুটবল রাজপুত্রের এইভাবে চলে যাওয়াটা এখনও যেন মেনে নিতে পারছে না গােটা বিশ্ব।আর্জেন্টিনার সীমা পেরিয়ে দিয়েগাে মারাদোনার মৃতু আন্তর্জাতিক শােকে পরিণত হয়েছে। বুধবার দুপুরে বুয়েনস আইরসের কাছে টিগারে নিজের বাসভবনে হৃদরােগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হন আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি। সেই খবর আসতেই বুয়েনস আইরস, লা প্লাতা থেকে শুরু করে গােটা আর্জেন্টিনা যেন শােকে ঢেকে গিয়েছে। করােনা পরিস্থিতির মধ্যেই ফুটবলের রাজপুত্রকে জাতীয় বীরের মর্যাদা দিয়ে বিদায় জানানাের তােড়জোড় ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে আর্জেন্টিনায়। রাষ্ট্রপতি আলবার্তো ফার্নান্ডেজ ইতিমধ্যেই তিনদিনের জাতীয় শােক ঘােষণা করেছেন। বুয়েনস আইরসে রাষ্ট্রপতি কার্যালয় কাসা রােশাদো প্যালেসে বৃহস্পতিবার থেকে শনিবার, তিনদিন দেশবাসীর শ্রদ্ধা জানানাের জন্য মারাদোনার দেহ শায়িত থাকবে বলে জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতির মুখপাত্র মারিও হাক। করােনার জন্য এতদিন রাষ্ট্রপতি কার্যালয়ের মূল প্রবেশ পথ বন্ধ রাখা হয়েছিল। কিন্তু বৃহস্পতিবার থেকে তিন দিনের জন্য সেই ফটক জনসাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে।মারাদোনার শেষ বিদায়কে স্মরণীয় করে রাখতে সমস্ত রকমের উদ্যোগ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আর্জেন্টিনা। সরকার। দেশের স্বাধীনতার পর মারাদোনার শেষ বিদায়কে দেশের সবথেকে বড় ইভেন্টে পরিণত করার উদ্যোগ নিয়েছে আর্জেন্টিনা সরকার। জানা গিয়েছে বুয়েনস আইরসে ফুটবল কিংবদন্তির শেষ বিদায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে লাতিন আমেরিকার ১৪ দেশের রাষ্ট্রপ্রধানকে আমন্ত্রণ জানানাে হয়েছে। বিশ্বের সমস্ত তারকা ফুটবলারদের কাছেও পৌঁছে গিয়েছে আমন্ত্রণপত্র। ভ্যাটিকান সিটির পােপ ফ্রান্সিস উপস্থিত থাকবেন। বুধবার রাতেই টিগারের বাসভবন থেকে ময়নাতদন্তের জন্য বুয়েনস আইরসের সান ফার্নান্দোর মর্গে নিয়ে যাওয়া হয় মারাদোনার দেহ। বৃহস্পতিবার সকালেই ফুটবল রাজপুত্রর কফিনবন্দি দেহ নিয়ে আসা হয় পিঙ্ক হাউস নামে পরিচিত রাষ্ট্রপতি কার্যালয়ে। গােটা আর্জেন্টিনায় যেন আত্মীয় বিয়ােগের যন্ত্রণা। শ্মশানের নীরবতা। প্রিয় নায়ককে শেষ বারের জন্য দেখতে গােটা দেশ রাস্তায় নেমে এসেছে। শেষ শ্রদ্ধা জানাতে কর্মসূত্রে দেশের বাইরে থাকা মানুষরাও ফিরছেন দেশে। সানআন্দ্রেস, লা প্লাতা, টিগারে মারাদোনার বাসভবনের সামনে। বুধবার বিকাল থেকেই ভিড় জমেছে। মােমবাতি, ফুল নিয়ে। চোখের জলে নিজের মতাে করে শ্রদ্ধা জানিয়ে যাচ্ছেন। সকলে। তিনদিন গােটা দেশের সমস্ত কাজকর্ম বন্ধ থাকবে। বুধবার থেকেই আর্জেন্টিনার সমস্ত ফুটবল ম্যাচ স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে। তাঁর ক্লাব বােকা জুনিয়র্স স্টেডিয়ামের সামনেও প্রিয় ফুটবলারকে শ্রদ্ধা জানাতে হাজির হচ্ছেন ফুটবল ভক্তরা। ভক্তদের কণ্ঠে- লা মানাে ডি ডিওস, অর্থাৎ হ্যান্ড অফ গড স্লোগান। সমর্থকরা মারাদোনার দেহ একবারের জন্য বােকা জুনিয়র্স ক্লাবে আনারও দাবি জানিয়েছে। আর্জেন্টিনা থেকে হাজার মাইল দূরে ইতালির নাপােলির সান পাওলাে স্টেডিয়ামেও মারাদোনাকে শ্রদ্ধা জানাতে ভিড় জমাচ্ছেন অসংখ্য ফুটবলপ্রেমী। এই নাপােলিকে তিনি এক হাতে, বলা ভালাে এক পায়ে সিরি এ চ্যাম্পিয়ন করেছিলেন। ১৮৮ ম্যাচে নাপােলির জার্সিতে ৮১ গােল করেছেন। আতশবাজি, মারাদোনার জার্সি, মুখােশ পরে চোখের জলে শ্রদ্ধা জানাচ্ছে সকলে। নাপলস প্রশাসনও বৃহস্পতিবার একদিনের জন্য শােক ঘােষণা করেছে। নাপলসের মেয়র লুইগি ডি ম্যাজিস্ট্রিস সান পাওলাে স্টেডিয়াম মারাদোনার নামে করার প্রস্তাব দিয়েছেন।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here