দাঁতন ও চন্দ্রকোণায়
দেবের মেগা শাে
উন্নয়নের কথাতেই বাজিমাত

0

Last Updated on March 18, 2021 12:25 AM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। তিনি কখনােই বিরােধীদের ব্যক্তিগত আক্রমণ করেন না। এবারও তার ব্যাতিক্রম হচ্ছে না। নির্বাচন ঘােষণার পর থেকেই তৃণমূল সুপ্রিমাে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁকে প্রচারের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দিয়েছেন। প্রতিদিন দুই থেকে তিন চারটি জনসভা, রােড শাে করছেন দেব। বাংলার নির্বাচনের ময়দানের সব রাজনৈতিক দল মিলিয়ে একমাত্র মেগাস্টার তিনিই, তাই তিনি সবচেয়ে বেশি সজাগ। যাতে তাঁর বিপুল পরিমাণ জনসমর্থনের কাছে কোনও ভুল বার্তা না যায়। তৃণমূলের বিগত দুটি শাসনকালের সব উন্নয়নকে তিনি সামনে আনছেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সব শ্রেণীর মানুষের জন্য যা যা উন্নয়ন করেছেন, তাকেই হাতিয়ার করে প্রচার করছেন দেব।লক্ষ মানুষের ভিড়ে তিনি সঠিক বার্তা পৌঁছে দিয়ে মন জয় করছেন সবার। তাঁর মেগা শাে অন্য রাজনৈতিক দলের কাছে শিক্ষণীয়। ব্যক্তিগত আক্রমণ, কুরুচিকর শব্দচয়ন নয়, আসলে উন্নয়নের বার্তাই ট্রাম্প কার্ড সেটা বুঝিয়ে দিচ্ছেন দেব।

- Advertisement -

অন্যদিকে, বিশ্বাসঘাতকরা নন, সংগ্রামীরাই ইতিহাস গড়েন। নন্দীগ্রাম থেকে বিপুল ভােটে জয়ী হয়ে মমতা ব্যানার্জি তৃতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী হয়ে সেই ইতিহাস গড়বেন বলছেন সৌগত রায়। বুধবার দাঁতন ও চন্দ্রকোনায় দুটি নির্বাচনী সভা করে এই বার্তা দিলেন তৃণমূল সাংসদ দেব ও সৌগত রায়। তিনি ও সাংসদ অভিনেতা দীপক অধিকারী ওরফে দেব এদিন হেলিকপ্টার চড়ে প্রথমে যান দাঁতনের দুই নম্বর ব্লকের তুরকা এলাকায়। এখানে তৃণমূল প্রার্থী বিক্রম প্রধানের সমর্থনে তারা সভা করেন। এই সভা শেষ করে বিকেলে তাঁরা চন্দ্রকোনার তৃণমূল প্রার্থী অরূপ ধাড়ার সমর্থনে জাড়া গ্রামে একটি সভা করেন। সভা শেষে রােড শাে করেন। দিল্লি থেকে আসা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মােদী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড়া যে বাংলার ভালাে চান না তা উল্লেখ করে তিনি জানান, এবারের নির্বাচন বাঙালির অস্মিতা রক্ষার লড়াই। আত্মমর্যাদা রক্ষার লড়াই। বাংলা বাঙালির কথায় চলবে না, দিল্লির কথায় চলবে এর লড়াই। তাই বাংলা নিজের মেয়েকেই চাই।

গত তিনদিন ধরে প্রার্থী নিয়ে যেভাবে কলকাতায় বিজেপির কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ চলেছে একে কটাক্ষ করে তৃণমূলের বর্ষীয়ান সাংসদ সৌগত রায় জানান, প্রার্থী খুঁজে পাচ্ছে না বলে সাংসদ দের প্রার্থী করেছে বিজেপি। দিলীপ ঘোেষ দাঁড়ালে তাঁর হার নিশ্চিত তাই তিনি প্রার্থী হতে চাননি। সভায় আসা হাজার হাজার মানুষের সামনে তিনি প্রশ্ন তােলেন, যিনি রাজ্যের ১০ কোটি মানুষকে খাদ্যসাথী, স্বাস্থ্যসাথী, ৫৯ লক্ষ ছাত্রীকে কন্যাশ্রী, ৮৪ লক্ষ ছাত্রছাত্রীকে সাইকেল, ৯ লক্ষ ছাত্রছাত্রীকে স্মার্টফোন কেনার জন্য ১০ হাজার টাকা, লােকশিল্পীদের ভাতা, ইমাম দের ভাতা, পুরােহিতদের ভাতা দিয়েছেন, ৬৭ টি প্রকল্প চালু করেছেন সেই মমতা ব্যানার্জিকে ভােট দেবেন না যে নরেন্দ্র মােদী পেট্রোলের দাম ৯১ টাকা, ডিজেলের দাম ৮৪ টাকা, রান্নার গ্যাসের দাম ৮৪৫ টাকা করেছেন, কৃষিবিল এনে কৃষকদের সর্বনাশ করেছেন তাঁকে ভােট দেবেন? সৌগত রায় বলেন, মােদী থাকা মানে সাম্প্রদায়িক শক্তি শক্তিশালী হবে, দাঙ্গা হবে। পুঁজিপতিদের পকেট ভারী হবে। আর মমতা থাকা মানে বিনেপয়সায় রেশন, বিণে পয়সায় স্বাস্থ্য, বিনেপয়সায় শিক্ষা আর উন্নয়নে ভরে উঠবে বাংলা। সাংসদ অভিনেতা দেব ওরফে দীপক অধিকারী জানান, তিনি ২০১৪ সাল থেকে তৃণমূলের সঙ্গে যুক্ত। মমতা ব্যানার্জি একমাত্র মুখ্যমন্ত্রী যিনি করােনার সময় হােক বা আমফান, রাস্তায় নেমে মানুষের পাশে থেকে সেবা করেছেন। উনি বাংলার উন্নয়নের কথা ভাবেন। উন্নয়ন করে দেখিয়েছেন।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here